লগ ইন
 

Logo

অনন্যা সংস্থা এর প্রকল্প সমূহ

সেমাই-চিনি ও চাল বিতরণ

অনন্যা সংস্থার সাধারণ সদস্য ও কর্মকর্তা কর্মচারী বৃন্দের আর্থিক সহায়তায় অনন্যা সংস্থার কার্য্যালয়ে ২৫০ জন অসহায়, দরিদ্র, দুঃস্থ প্রতিবন্ধী ব্যক্তির মাঝে সেমাই-চিনি বিতরণ করা হয়।

বস্ত্র বিতরণ

অনন্যা সংস্থা ১৫০ জন দুঃস্থ, প্রতিবন্ধী ব্যাক্তিদের মাঝে কম্বল বিতরণ করে।

প্রবীণ ‍উন্নয়ন কর্মসূচী

অনন্যা সংস্থা ২০১১ সাল থেকে প্রবীণ ব্যক্তিদের জীবন মাল উন্নয়নের জন্য প্রবীণ উন্নয়ন কর্মসূচী বাস্তবায়ন করছে। কর্ম এলকায় প্রবীণ ব্যক্তিদের তালিকা প্রস্তুতকরণ একটি চলমান কাজ। এই তালিকা ভুক্ত প্রবীণ ব্যক্তির প্রতি বছরে ন্যয় এবারও শীত বস্ত্র, চাল, ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে সেমাই চিনি বিতরণ করা হয়। এছাড়াও এলাকায় চিকিৎসা ক্যাম্প ও চক্ষু শিবির করা হয়। যে সব প্রবীণ ব্যক্তির উ্ন্নত চিকিৎসা দরকার তাদেরকে বিভিন্ন হাসপাতালে রেফার করা হয়। চক্ষু শিবিরে বাছােইকৃত রোগীদের বিনামূল্যে চক্ষু হাসপাতালে অপারেশনের ব্যবস্থা করা হয়। এ ব্যপারে অনন্যা সংস্থার কর্মকর্তঅ, কার্যনির্বাহী পরিষদ, বিএনএসপি চক্ষু হাসপাতাল দিনাজপুর, হেলথ এ্যাইজ বাংলাদেশ সহযোগীতা দিয়ে আসছে।

Social Mobilization of Marginalized occupational groups to attain economic justice কার্যক্রম

অনন্যা সংস্থা গনতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলনের মাধ্যমে সচেতন রাজশাহী এর আর্থিক সহযোগীতায় জাতীয় বাজেটে বরাদ্দ প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর উপর করের প্রভাব ও সরাকরী পরিশেবা ইত্যাদি বিষয়ে মানববন্ধন, আলোচনা সভা, জেলা কমিটির সভা করা হয়।

Strengthening Public Private Partnership for policy reforms

USAID-প্রগতি খান ফাউন্ডেশনের সহযোগীতায় ২০১১ সালে অনন্যা সংস্থা দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ে কাজ করে এরই ধারাবাহিকতায় USAID-প্রগতি ও গ্রামীন আলোর সহযোগীতায় দ্বিতীয় প্রজন্মের নাগরিক সনদ প্রণয়ন বিষয়ে ২০১২ সালে কাজ করে সদর, বিরল, চিরিরবন্দর উপজেলার স্থানীয় জনগনের মধ্য থেকে নাগরিক ফোরাম সঠন করে নাগরিক ফোরামকে নাগরিক সনদ বিষয়ে ওরিয়েন্টেশন দেওয়া হয়। সনদ প্রণয়নের খাত হিসাবে স্বা্স্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠানকে বেছে নেওয়া হয়। বিরলও চিরিরবন্দর উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তাদের সাথে এবং সদর উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার কর্মকর্তাাদের সাথে নাগরিক ফোরাম সভা করে তথ্য সংগহ্র করে এবং দ্বিতীয় প্রজন্মের নাগরিক সনদ প্রণয়ন  করে সংশ্লিষ্ট সরকারী কর্মকর্তা, স্থানীয় নাগরিক ফোরাম স্থানীয় নাগরিক সংগঠন প্রতিনিধি USAID-প্রগতি ও গ্রামীন আলোর প্রতিনিধি সহ সকলের মিলিত ভাবে এই সনদ প্রণয়নে সহযোগীতা করে। এ কার্যক্রমের ৯ই ডিসেম্বর দুর্নীতি প্রতিরোধ দিবস পালন করা হয়। আগামীতে দাতা সংস্থার সাহায্য ছাড়াই অনন্যা সংস্থা নিজেস্ব উদ্দ্যেগে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নাগরিক সনদ প্রণয়নে কারীগরি সহায়তা প্রদান করবে এবং কার্যক্রম চলমান রাখবে।

তামাক ও মাদক নিয়ন্ত্রন কার্যক্রম

সরকারের পাশাপাশি অনন্যা সংস্থা তামাক ও মাদক নিয়ন্ত্রন কার্যক্রমকে হাতে নিয়ে সার্বজনীন জনস্বার্থের কল্যাণ সাধন করেছে। মাদক নিয়ন্ত্রন করার লক্ষ্যে অনন্যা সংস্থা বিভিন্ন প্রকার র‌্যালী, সভা, সমাবেশ, মিটিং, মিছিল, আলোচনা ও প্রশিক্ষণের আয়োজন করে থাকে। ২৬শে জুন বিশ্ব মাদক নিয়ন্ত্রন দিবস পালন করে। দিনাজপুর মাদক বিরোধী জোট এর সঙ্গে ৯ই অক্টোবর বিশ্ব তামাক মুক্ত দিবস পালন করে।

নিরাপদ পানি ও পঁয়নিস্কাশন কর্মসূচী

সচেতনার জন্য ছাত্রছাত্রী নিয়ে এবং বিভিন্ন এলাকায় এলাকাবাসীদের নিয়ে সামাজিক সভা করা হয়। র‌্যালী, মানববন্ধন, আলোচনা সভা দিবস উদযাপন এ অংশগ্রহণ করা হয়। নিরাপদ পানি ও পঁয়নিস্কাশন বিষয়ে আলোচনা সভা ও উঠান বৈঠক করা হয়। ১লা জুলাই/১৪ হতে ৩০শে জুন/১৫ পর্ন্ত ৪৫টি উঠান বৈঠক সভা করা হয়।

শিক্ষা কার্যক্রম

অনন্যা সংস্থা নিজস্ব কর্ম এলাকায় স্কুলগামী ছাত্র ঝড়ে পড়া রোধ করার জন্য উঠান বৈঠক কের, কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে তফির উদ্দীন স্কলেকে বেছে নেয়। স্কুলটি হতে ঝড়ে পড়া ছাত্রের খোঁজ নিয়ে তাকে স্কুলে পাঠায় েএবং বিদ্যালয়ে প্রতিটি শ্রেণীতে Make Your own question কর্মসূচী পরিচালনা করা হয়।

দিবস পালন

অনন্যা সংস্থা কর্তৃক দিবস গুলি নিম্ন লিখিত ভাবে পালিত হয়:

২১শে ফেব্রুয়ারী- জাতীয় শোক দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস: অনন্যা সংস্থা দিবসটি পালন করার জন্য ২০শে ফেব্রুয়ারী রাত ১২.০০ টায় অনন্যা সংস্থা থেকে সংস্থার সকল কর্মকর্তা ও ৪০ জন সদস্য সহ নিজস্ব ব্যানার এবং ফুলের ডালা সহ র‌্যালী বের হয়ে বড় মাঠ কেন্দ্রী শহীদ মিনারে ফুলের ডালা অর্পন করে।

৮ই মার্চ- আন্তর্জাতিক নারী দিবস: অনন্যা সংস্থ দিবসটি পালন করে এডাব অনুসংগঠনের সাথে যৌথ ভাবে ইনস্টিটিউট প্রাঙ্গনে সকল সদস্য সমবেত হয় এবং সেখান থেকে র‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ইনষ্টিটিউট প্রাঙ্গনে র‌্যালী সমাপ্ত হয়। অনন্যা সংস্থার সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারী এবং ১০জন উপকার ভোগী সদস্য সেখানে অংশগ্রহণ করে।

১৪ই মার্চ-  ভোক্ত অধিকার দিবস: এ দিবসটি পালনের জন্য অনন্যা সংস্থার সকল কর্মকর্তা জেলা প্রশাসনের সমন্বয় কক্ষে ভোক্ত অধিকার দিবস এর আলোচনায় যোগ দেয়।

২৬শে মার্চ- স্বাধীনতা দিবস: অনন্যা সংস্থার কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয় এবং সংস্থার কর্মকর্তা ও কর্মচারী বৃন্দের আলোচনা সভা হয়।

২৬শে মার্চ- দুর্নীতি বিরোধী সপ্তাহ পালন: জেলা প্রশাসন চত্তরে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি স্তম্ভে পুষ্পঞ্জলী অর্পন, দুদক ও দুর্নীতি বিরোধী বিরোধী কমিটির যৌথ উদ্দ্যেগে চিত্রাংকন প্রতিযোগীতার আয়োজন, দিনাজপুর জিলা স্কুলের সামনে মানববন্ধন এবং স্কুলের অডিটরিয়ামে আলোচনা সভা করা হয়।

২রা এপ্রিল- আন্তর্জাতিক অটিটম সচেতনতা দিবস: বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস উপলক্ষে সমাজ সেবা অধিদপ্তর এর সঙ্গে ও বিভিন্ন সংগঠন সহ অনন্যা সংস্থা জেলা প্রশাসন চত্তরে সমেবেত হয় সেখান হতে র‌্যালী বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসক চত্তরে এসে শেষ হয় এবং জেলা প্রশাসন সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা করা হয়।

৭ই এপ্রিল- বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস: বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস উপলক্ষে সিভিল সার্জন অফিস এর সঙ্গে যৌথ ভাবে র‌্যালী ও আলোচনা সভায় অংশ গ্রহণ করা হয়।

৩রা জুলাই- জন্ম নিবন্ধন দিবস : জেলা প্রশাসনের অফিস থেকে র‌্যালী বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় জেলা প্রশাসনের চত্তরে এসে শেষ হয় এবং জেলা প্রশাসন সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা করা হয়। অনন্যা সংস্থার ২০ জন সদস্য  সহ উক্ত কার্যক্রমে অংশ গ্রহণ করে।

১৫ই জুলাই- সাদা ছড়ি দিবস : সাদা ছড়ি দিবসটি পালন করার জন্য সমাজ সেবা অধিদপ্তর, অনন্যা সংস্থা, বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে একত্রে জেলা প্রসাশন চত্তর হতে র‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে শিশু একাডেমীতে শেষ হয় এবং সেখানে আলোচনা সভা করা হয়। সংস্থার সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারী এবং ১০জন প্রতিবন্ধী সংস্থার পক্ষ থেকে অংশগ্রহণ করে।

৩রা ডিসেম্বর- আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস : জেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তর দিনাজপুর এর সহযোগীতায় বিভিন্ন সংগঠনের সঙ্গে এই দিবস পালনে অনন্যা সংস্থা অংশগ্রহণ করে। ডিসি অফিস প্রাঙ্গন থেকে র‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে লোক ভবন এ গিয়ে শেষ হয় এবং সেখানে আলোচনা সভা হয়।

৯ই ডিসেম্বর- আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস: জেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তর দিনাজপুর এর সহযোগতিায় বিভিন্ন সংগঠনের সঙ্গে এই দিবস পালনে অনন্যা সংস্থা অংশগ্রহন করে। ডিসি অফিস প্রাঙ্গন থেকে র‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে লোক ভবনে গিয়ে শেষ হয় এবং সেখানে আলোচনা সভা হয়।

১০ ডিসেম্বর- আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস : অনন্যা সংস্থা ও অন্যান্য সংগঠন সহ অনন্যা সংস্থার কার্যালয়ে আলোচনা সভা করা হয়।

১৮ ডিসেম্বর- বিশ্ব অভিবাসী দিবস: জেলা প্রশাসন এর আয়োজনে বিভিন্ন সরকারী এবং এনজিও দলের সমন্বয়ে অনন্যা সংস্থা দিবস উদযাপনে অংশগ্রহণ করে। ইনষ্টিটিউট প্রাঙ্গন থেকে র‌্যালী বের হয়ে কেন্দ্রীয় বড়মাঠে শেষ হয়।

নারী শিশু পাচার এবং নির্যাতনে ২৪ ঘন্টা মোবাইল হটলিংক ব্যবহার কার্যক্রম

অনন্যা সংস্থা নারী নির্যাতন প্রতিরোধ বিষয়ক আলোচনা সভা উঠান বৈঠক কের, জনগণকে সচেতন করে এবং কোথাও কোন সহিংসতা ঘটছে কিনা সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখে। দূর্বার নেটওয়ার্ক কালিতলায় সিডো ট্রেনিং সংস্থা নেয় এবং সিডোর ধারা সমূহ বাংলাদেশ সংবিধানের ধারার সমন্বয়ে নারী নির্যাতন প্রতিরোধে কাজে লাগায়। খান ফাউন্ডেশনের সহযোগীতায় ১লা এপ্রিল/১০ থেকে কার্যক্রমটি শুরু হয়। দিনাজপুর জেলায় ১৩টি উপজেলায় কার্যক্রম বাস্তবায়ন হচ্ছে। কমিউনিটি ওয়াচ গ্রুপের সদস্য খান ফাউন্ডেশন থেকে প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত। দিনাজপুর জেলায় ১৩টি উপজেলায় তারা কাজ করছে। খান ফাউন্ডেশনের ২টি মোবাইল নম্বর এবং অনন্যা সংস্থার ১টি নম্বর মোট ৩টি হটলিংক নম্বর (০১৭১৩১৮৫৫২২, ০১৭১৩১৮৫৫৩৩, ০১৭১৩১৮৫৫৪৪) ফিল্ডে দেওয়া আছে। (এই নম্বরগুলি জেলা প্রশাসন, ইউএনও অফিস, পুলিশ প্রশাসনকে অবহিত করা হয়। কোথাও কোন নির্যাতনের ঘটনা ঘটলে এই নম্বরের মাধ্যমে খবর পেয়ে কমিউনিটি ওয়াচ গ্রুপের সদস্য ফিল্ডে গিয়ে নির্যাতিতার পাশে দাড়ায় পরামর্শ, গ্রাম্য শালিশ অথবা কোটের মাধ্যমে সহায়তা করে, প্রয়োজনে ঔষধ, খাবার দিয়ে সহায়তা করা হয় এবং পরবর্তীতে মনিটরিং করা হয়। বিভিন্ন সেবা প্রতিষ্ঠান রেফার করা হয়। যেমন: ব্লাষ্ট, মহিলা আইন জীবি সমিতি ইত্যাদি। প্রতিমাসে রিপোর্ট খান ফাউন্ডেশন ঢাকা কে অবহিত করা হয়।

Community Approaches to Handicap in Disability

প্রতিবন্ধী উন্নয়ন কার্যক্রম সংস্থা প্রতিবন্ধীদের আর্থক উন্নতির জন্য তাদেরকে অনুদান দেয় ও সহজ সুদে ক্ষুদ্র ঋণ দিয়ে থাকে এবং তাদের কর্ম প্রচেষ্ঠা করা হয়। CDD সাভার, ঢাকা’র সাথে অনন্যা সংস্থা চুক্তি বন্ধ হয়ে প্রতিবন্ধী উন্নয়ন কার্যক্রম ব্যপক ও সুষ্টুভাবে বাস্তবায়নের জন্য নির্বাহী পরিচালক PDIM প্রশিক্ষণ গ্রহণ এবং ১ জন কর্মী সোসাল কমিউনিকেটর ও ২ জন কর্মী CHDRP প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। এ পর্যন্ত ৫২ জন প্রতিবন্ধী ব্যক্তি নিবন্ধীত হয়। বর্তমানে ১ জন  CHDRP কর্মরত আছেন। তিনি প্রতিবন্ধীদের ব্যায়াম ও পরামর্শ দেন। কিছু প্রতিবন্ধী অফিসে এসে ব্যায়াম নেয় এবং কয়েকজনকে ফিল্ডে গিয়ে ব্যায়াম দেয়া হয়। সোস্যাল কমিউনিকেটর প্রতিমাসে অত্যন্ত ১ বার ফিল্ড পরিদর্শন করেন। মাসিক পরিকল্পনা অনুয়ায়ী প্রতিমাসে সামাজিক সভা করা হয়। জুলাই/১৪ হতে জুন/১৫ পর্যন্ত স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী, এলাকাবাসীদের নিয়ে মোট ৪৬টি সামাজিক সভা করা হয়। দৃষ্টি, শারিরীক, বুদ্ধি প্রতিবন্ধীসহ মোট ৪০ জনকে চক্ষু হাসপাতাল, ডায়বেটিক হাসপাতাল এবং দিনাজপুর সরকারী হাসপাতলে বিনামূল্যে চিকিৎসার জন্য রেফার করা হয়। প্রতিবন্ধী সাহায্য ও সেবাকেন্দ্র দিনাজপুর হতে ৪ জন প্রতিবন্ধীকে হুইল চেয়ার সহায়তা দেওয়া হয়। ১০০ জন প্রতিবন্ধীর মাঝে ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে সেমাই চিনি বিতরণ করা হয়।

 


 

NGO সমূহ